Symptoms of Thyroid Problems

থাইরয়েড সমস্যার উপসর্গ

আমরা অনেক সময় বুঝতে পারি না যে, আমাদের কোন সমস্যা দেখা দিলে কোন ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া দরকার। আজকে আপনাদের সামনে তুলে ধরব নিম্ন লিখিত সমস্যা গুলো দেখা দিলে আপনি হরমোন ও ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখাতে পারেন। আর এই সমস্যাগুলিকে থাইরয়েড হিসেবে ধরে নেয়া হয়। তো আসুন বিস্তারিত জেনে নিই-

সাধারনতঃ থাইরয়েড সমস্যার উপসর্গ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অস্পষ্ট থাকে, কিন্তু আপনি যদি এ নিচে আলোচিত উপসর্গের এক বা একাধিক উপসর্গ দীর্ঘদিন ধরে পরিলক্ষিত হয়, তাহলে আপনার হরমোনের মাত্রা সম্পর্কে জানতে সাধারণ রক্ত পরীক্ষার জন্য ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে।

আমাদের চারপাশে প্রতি দশজন নারীর একজন থাইরয়েডের সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে থাকেন। ছোট থেকে শুরু করে বয়স্ক নারী, যে কেউ যে কোনো সময় হাইপোথাইরয়েড সমস্যায় আক্রান্ত হতে পারেন। আমরা অনেকেই মনে করি থাইরয়েডের সমস্যায় সব সময় যে গলগণ্ড হবে বা গলার গ্ল্যান্ড ফুলবে, তা কিন্তু নয়। দেখা যায় বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই হাইপোথাইরয়েড বা থাইরয়েড হরমোনের ঘাটতি খুব সামান্য উপসর্গ নিয়ে ধরা পড়ে, কখনো কখনো কোনো উপসর্গ থাকেই না।

জেনে নিন কখন থাইরয়েড হরমোন ও ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখাবেন বা কি কি সমস্যা হলে থাইরয়েড পরীক্ষা করানো উচিত।

আপনি বোঝাতে বা ব্যাখ্যা করতে পারছেন না এমন ক্লান্তি বা অবসাদ, অল্পতেই পরিশ্রান্ত বোধ করার অনুভূতি হতে পারে।
শরীরের পেশি বা সন্ধিতে কোনো কারণ ছাড়াই ব্যথা, ম্যাজমেজে ভাব অনুভব হতে পারে। কখনো সকালে ঘুম থেকে জেগে মনে হতে পারে মুখটা ফোলা, পায়ে মাঝে মাঝে পানিও আসতে পারে।
ওজন বাড়তে থাকা ও চেষ্টা সত্ত্বেও ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে না পারা হাইপোথাইরয়েডের অন্যতম একটি লক্ষণ।
রুটিন পরীক্ষায় নারীদের রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত পাওয়া গেলে থাইরয়েড হরমোন পরীক্ষা করার কথা নির্দেশিত আছে। টাইপ ২ ডায়াবেটিস এবং রক্তশূন্যতায় আক্রান্ত নারীদেরও রুটিন থাইরয়েড পরীক্ষা করা উচিত।
অনিয়মিত মাসিক, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ, বন্ধ্যাত্ব, গর্ভপাত হয়ে যাওয়া।
স্রেফ কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে থাইরয়েড ঘাটতির একটি বিশেষ উপসর্গ।
শুষ্ক ত্বক, অতিরিক্ত চুল পড়া ও ত্বকের নানা সমস্যায় থাইরয়েড হরমোন পরীক্ষা করার প্রয়োজন হতে পারে।
মধ্যবয়স্ক বা বয়স্ক নারীদের ভুলে যাওয়ার প্রবণতা, মনোযোগ না থাকা ও ডিমেনশিয়াকে অনেক সময়ই উপেক্ষা করা হয়। কিন্তু গবেষণা দেখা গেছে, শুধু এই উপসর্গ নিয়েই একটা বড় অংশের হাইপোথাইরয়েড রোগীর রোগ শনাক্ত হয়।

সবচেয়ে বেশি অবহেলিত উপসর্গ হলো ব্যাখ্যাতীত বিষণ্নতা, মেজাজ খিটখিটে , অতিরিক্ত আবেগ প্রবণতা।

পাঠক উপরে উল্লেখিত বিষয় গুলো আপনার নজরে এলে দেরি না করে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। এ জন্য আপনি হরমোন ও ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখাতে পারেন। সুস্থ থাকুন। ভাল থাকুন।

RATE THIS POST & SHARE IT

Leave a Comment